সরাসরি প্রধান সামগ্রীতে চলে যান

রাইটার ব্লক কি ? কিভাবে রাইটার ব্লক দমন করবেন ?- Writer Block In Bangla.

রাইটার ব্লক কি ? কিভাবে রাইটার ব্লক দমন করবেন ?- Writer Block In Bangla.
Writer Block In Bangla.


রাইটার ব্লক কি ? কিভাবে রাইটার ব্লক দমন করবেন ?- Writer Block In Bangla. আপনি কখনো এমন অনুভব করেচেন যখন আপনি কোনো কিছু কনটেন্ট বা স্ক্রিপ্ট লিখতে শুরু করেছেন যেকোনো ভাষায় কিন্তু কিছুই লিখতে পারছেন না বা কিছু মনে আসছে না খুবই স্ট্রাগেল করছেন একটুখানি লেখার জন্য এটাকেই রাইটার ব্লক বলা হয়। 


এটা কোনো অদ্ভুত রকমের অনুভব বা এক্সপিরিয়েন্স নয় সমস্ত রকমের রাইটারদের প্রথমে এই স্টেজটি পার করতে হয় যেখানে রাইটার চেষ্টা করছেন কিছু নিজের আইডিয়া লেখার কিন্তু খালি ভাবছেন কিভাবে শুরু করা যায় কোথা থেকে শুরু করা যায়। 


রাইটার ব্লক দমন করা বা কাটিয়ে উঠা সমস্তটাই নির্ভর করে একজন রাইটারের উপর কিভাবে চেষ্টা করছেন এটা দমন করতে তাছাড়াও রাইটার ব্লকের প্রধান কারণ যেটা থেকে আসে মানুষ কিভাবে আমার লেখাটি নেবে তারা কি এটা লাইক করবে না ইগনোর করবে এই রকমের ইনসিকিউরিটি ও ভয়।


 

রাইটার ব্লক কি ? [What Is Writer Block In Bangla]


রাইটার ব্লক এক কথায় একরকমের অনুভূতি যেটা লেখার সময় আসে আপনি যেমন আটকা পড়েছেন কোনো সমস্যার মধ্যে সেটা থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করছেন। 



রাইটার ব্লক অবস্থায় আপনি কিছু কনটেন্ট বা স্ক্রিপ্ট লেখা সহজে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবেন না, আপনাকে এটার জট কাটিয়ে বেরিয়ে আস্তে হবে এটা আপনার জানেন কিভাবে হ্যান্ডেল করবেন।


আজ অনেক টিপস বা টুলস আছে যেটা আপনাকে সহজে এই জট থেকে বেরিয়ে আস্তে সহজ করবে কিন্তু যদি আপনি নতুন রাইটার হয়ে থাকেন তাহলে এটা আপনার জন্য কিছুতা সময় দরকার সমস্যার সমাধানের জন্য।   



রাইটার ব্লকের প্রধান কারণ গুলি ? [ Reason To Writer Block]


রাইটার ব্লক প্রধানত অনেক কারণেই ঘটতে পারে, এটা সম্পূর্ণ নির্ভর করে যিনি রাইটার বা লেখক, কিন্তু সাধারণ মানুষ বা প্যাসিভ ব্লগ ওনার ভেবে থাকেন রাইটার ব্লক ঘটতে থাকে ট্যালেন্ট বা ভালো আইডিয়া না থাকার জন্য কিন্তু যারা নতুন রাইটার তারা এগুলি বুঝেন। 


রাইটার ব্লক প্রধান কারণ হচ্ছে সেলফ-ডাউট তাছাড়াও ১৯৭০ সালে কিছু ব্যাক্তি কিছু নতুন প্রফেশনাল রাইটারদেড় উপর একটি রিসার্চ চালিয়ে ছিলেন যেখানে তারা আবিষ্কার করে ছিলেন বিভিন্ন রকমের কারণ। 




⊚ সময় - অনেক সময় একজন রাইটার ভালো সময় হবার সত্ত্বেও তারা লেখেননা চেষ্টা করেন আরো ভালো করে জিনিসটি মনের মধ্যে সাজিয়ে গুছিয়ে নিতে যেটার প্রধান উৎপত্তি স্থল রাইটার ব্লক থেকে হয়ে থাকে। 



⊚ রাগ - অনেক সময় অনেক রাইটার কোনো লেখা শেষ করা বিপরীত লেখকের র পর যদি কিছু ভুল লিখে থাকেন যেটা তাদের রাগ সৃষ্টি করে এবং এটাই রাইটার ব্লক তৈরি করে থাকে কখনো।



⊚ ভয় - ভয় জন্ম নেয় বিপরীত লেখকের থেকে ক্রিটিসাইজ হওয়ার জন্য যেটা আপনাকে অক্ষম বানিয়ে দেয় কনটেন্ট না লেখার জন্য ওটাকেই আমরা রাইটার ব্লক বলি। 




কিভাবে রাইটার ব্লক দমন করবেন ? [ How To Prevent Writer Block ]


এটা কিন্তু সত্যি একটি কঠিন প্রশ্ন যেটার বাস্তব উত্তর দেয়া কঠিন তবুও চেষ্টা করছি বলার কারণ আমিও রাইটার ব্লকের শিকার হয়ে ছিলাম তবে সেটা সফল ভাবে কাটিয়ে উঠতে পেরেচি। 



যদি আপনি রাইটার ব্লকে হারাতে চান তাহলে এটার জন্য দরকার আর্ট বা টেকনিক কোনো টিপস বা সাইন্স না এভাবেই আপনাকে রইটার ব্লক দমন করতে হবে তাছাড়াও নিচে কিছু ট্রিকস জানবো। 






১.ঘন ঘন ব্রেক নিন। - যদি আপনি রাইটার ব্লকের মুখ-মুখী হন তাহলে ঘন ঘন ব্রেক নিন হতে পারে কিছু ঘন্টা বা কিছু দিন বা প্রত্যেক লেখার কিছু মিনিট অন্তর-অন্তর যেটা আপনার মনটাকে আগের মতো কনসেন্টট্রেট করতে সাহায্য করবে। 




২.একটি সঠিক ডেড-লাইন সেট করুন।- রাইটার ব্লক যদি কোনো বিষয় দমন করতে পারে তাহলে সেটা হচ্ছে কঠিন  ডেড-লাইন সেট, হুম ঠিকই শুনেছেন একটি ডেড লাইন কিন্তু আপনাকে বাধ্য করবে লিখতে এবং যদি আপনি চেষ্টা করেন লিখতে তাহলে রাইটার ব্লক দমন হতে পারে সহজে। 




৩.ফ্রিরাইট। - যদি আপনি সহজে রাইটার ব্লক দমন করতে চান তাহলে আপনি যেসব কনটেন্ট গুলি লিখছেন সেটা বন্ধ করে ফ্রীরাইট করতে পারেন আপনি যেখানে গ্রামার্,শব্দের বা স্ট্রাকচারে উপর নজর নাদিয়ে লিখতে থাকেন ,কোনো কিছুই না ধরেই এবং না ভুল আপনি করছেন বা ঠিক করছেন যেটা আপনার ব্রেনকে চাপ দেবে না যেটা রাইটার ব্লককে কাটিয়ে উঠার বড়ো উপায়। 




৪.ছোট থেকে শুরুকরুন। - আপনি জানেননা আপনি কোন পার্টটি লিখছেন একটি কনটেন্ট বা স্ক্রিপ্টের যদি আপনি রাইটার ব্লকের সম্মুখীন হন তাহলে আপনাকে নিশ্চিত শুধু লিখতে হবে। আমি মনে করে যদি আপনি ছোট-ছোটে আকারে আপনার কনটেন্ট গুলিকে ভেঙে নেনে তাহলে আপনাকে আরো ছোটো মনোযোগ একটি ছোটো কনটেন্ট লেখার পেছনে লাগাতে পারবেন তাহলে আপনি সহজে রাইটার ব্লক কাটিয়ে উঠতে পারবেন। 
তাছাড়াও অনেক সময় যখন আপনি একটি বড়ো টাস্ককে ভাগ-ভাগ আকারে করতে থাকেন এটার মধ্যে যতই সমস্যা আসুক আপনি কাজ করতে করতে সেইগুলির সমাধান করে নিতে পারবেন এবং প্রত্যেকটি লেখা যখন ইচ্ছা পাল্টাতে পারবেন। 




৫.অন্য কিছু করুন। - অন্য কিছু করুন যেমন হাঁটুন বা রাইডিং করুন যেটা সম্পূর্ণ আকারে আপনার মনোযোগ গ্রাস করতে পারে সঠিক ভাবে এই রাইটিং দুনিয়া থেকে বেরিয়ে বা হারিয়ে যান এবং তাহলে আপনি সঠিক ভাবে আবার আপনার মনোযোগ আন্তে পারবেন লেখার উপর নাহলে রাইটার ব্লকের স্মুখীন হতে থাকবেন সর্বদা। 


মন্তব্য

এই ব্লগটি থেকে জনপ্রিয় পোস্টগুলি

আলী এক্সপ্রেসে ড্রপ শিপিং বিজনেস গাইড: ইনকাম $1000 প্রত্যেক মাসে।

ড্রপ শিপিং বিজনেস গাইড সবাই আজ পয়সা ইনকাম করতে চাইছে ঘর থেকে কাজ করে,আপনি জানেন ঘরে বসে ইন্টারনেটে কাজ করে পয়সা উপার্জন এখন খুব কঠিন হয়েছে কারণ কম্পেটিশান ইন্টারনেটের প্রত্যেকটি জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছে,তাই আজ আমার একটি নতুন বিষয় আপনাদের জানাতে চলেছি কিভাবে আলী এক্সপ্রেস ব্যবহার করে ড্রপ শিপিং বিজনেস মাধমে মাসে $1000 ইনকাম করবেন ঘরে বসে এছাড়াও আমরা আরো কিছু তথ্য জানবো কিভাবে আলী এক্সপ্রেস কাজ করে কতটা কার্যকরী পয়সা উপার্জনের জন্য। প্রথমে আমাদের জানতে হবে আলী এক্সপ্রেস কি , এবং কিভাবে এটা কাজ করে তার পর জানবো ড্রপ শিপিংর ব্যাপারে । আশা করবো এই গাইডটি অবশই আপনাদের সাহায্য করবে যারা নতুন ড্রপ শিপিং শুরু করতে চাইছেন এবং প্রত্যেকটি প্রসেস আপনাদের এক এক করে বলবো কিভাবে সপিফাই ব্যবহার করে একটি ড্রপ শিপিং স্টোর সেটআপ করবেন। #আলী এক্সপ্রেস ড্রপ শিপিং কি? চীনের সব থেকে বড়ো ইকমার্স  অনলাইন স্টোর যেটা আমাজানের মতোই যাদের লক্ষ প্রত্যেকটি ছোট বিসনেসকে ইন্টারনেটের সঙ্গে যুক্ত করা,আলী এক্সপ্রেসের পথ চলা শুরু করে ছিলো 2010 যেটা আলিবাবা গ্রুপেরি একটি অংশও পৃথিবীর প্রথম

2020 নতুন 16টি ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া।(YouTube nich idea in bangla)

2020 নতুন 16টি ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া বাংলা ইউটিউব চ্যানেল আপনি নতুন ইউটিবে ক্যরিয়ার গড়তে চাইছেন তাহলে আপনি সঠিক জায়গায় এসে উপস্থিত হয়েছেন আপনার জন্য 2020 নতুন 16টি ইউটিবের চ্যানেলের আইডিয়া ।   হতে পারে আপনার একটি টপিকের প্রয়োজন যেটার উপরে আপনি কাজ করবেন, ও চ্যানেল আইডিয়া পেয়েচেন, তাহলে শুনুন সেটা আর কাজ করবে না, আর যদিও করে তাহলে প্রচুর সময় নেবে রেঙ্ক হতে, তাহলে কি করবেন আসুন নিচের কিছু নতুন ক্রিয়েটিভ চ্যানেল আইডিয়া বা ইউটিউব কন্টেন্ট আইডিয়া   আছে যেগুলি উপর  ইউটিউব ভিডিও তৈরি  করে দেকতে পারেন। এই চ্যানেল আইডিয়া গুলি খুঁজতে আমার 3সপ্তায় সময় লেগেছে এবং প্রত্যেকটি চ্যানেলের আইডিয়া সলিড ও ইউনিক এবং খুবই তাড়াতাড়ি ভিউ পাবার সম্ভবনা আছে। সবার আগে চেষ্টা করুন একটি নজর কাড়া চ্যানেল বানাতে তার পর ইনকাম আপনি দেকবেন যারা সফল ইউটিউবার তাদের ভিডিও খুব বেশি ভাইরাল হয়েযায় বা খুব লাইক, সাবস্ক্রাইবার আসে আলটিমেট প্রচুর ইনকামও করে যদি আপনি শুরুতেই এই রকমের কিছু আশা করেন তাহলে ওটা সম্ভব নয়,তাদের প্রচুর সময় ব্যায় করে তবেই ওই রকমের একটি চ্যানেল দাঁড় করাতে পরেছে। বড়ো মাপের

সহজে একটি সেরা আর্টিকেল লেখার নিয়ম।(কনটেন্ট রাইটিং টিপস)- Content Writing Tips In Bangla.

কনটেন্ট রাইটিং টিপস।